কুড়িয়ে পাওয়া চার লাখ টাকা ফেরত দিলেন

রংপুর নগরীতে রাস্তায় কুড়িয়ে পাওয়া ২ লাখ ৩৮ হাজার টাকা ফেরত দিয়েছেন এক চাকরিজীবী। ওই টাকার সঙ্গে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকার একটি চেকও ছিল। ঘটনাটি ঘটেছে নগরীর নবাবগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ি-সংলগ্ন জুম্মাপাড়া এলাকায়।

রোববার (১৮ জুলাই) বেলা দেড়টার দিকে নগরীর নবাবগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ি-সংলগ্ন জুম্মাপাড়া রোডে কাগজে মোড়ানো পড়ে থাকা টাকাগুলো কুড়িয়ে পান আজিজুর রহমান জুয়েল। পরে বিকেল চারটার দিকে প্রকৃত মালিক আলমগীর হোসেনকে চেকসহ টাকাগুলো ফেরত দেন তিনি।

আজিজুর জুম্মাপাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি র‌্যাংগস পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের (শেল লুব্রিকেন্ট) ডেপুটি ম্যানেজার পদে চাকরি করছেন।

আজিজুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘দুপুরে বাড়ি থেকে বের হয়ে বাজারে যাওয়ার পথে রাস্তায় অনেকগুলো টাকা পড়ে থাকতে দেখি। প্রথমে নিজেই ভয় পেয়েছিলেন। পরে টাকাগুলো কুড়িয়ে নিই। একটা টিস্যু জাতীয় কাগজে মোড়ানো ছিল টাকাগুলো। পরে তা একটা ব্যাগে করে নিয়ে আসি।’

বাসায় ফিরে টাকার প্রকৃত মালিকের সন্ধান করার কাজ শুরু করেন আজিজুর। পরে টাকার সঙ্গে থাকা চেকের পেছনে লেখা ফোন নম্বর দেখতে পান। সেই নম্বরে যোগাযোগ করেন। অপর প্রান্ত থেকে টাকা হারিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করলে টাকার মালিককে প্রয়োজনীয় প্রমাণসহ দেখা করতে বলেন তিনি।

আজিজুর আরও জানান, ‘মুঠোফোন নম্বরে কথা বলে জানতে পারি, টাকাগুলো প্রাণ গ্রুপে কর্মরত আলমগীর হোসেন নামের একজন হারিয়ে ফেলেছেন। পরে বিকেলে ওই ব্যক্তি প্রমাণসহ উপস্থিত হন। সবকিছু যাচাই-বাছাই করে স্থানীয়দের উপস্থিতিতে টাকা ও চেক ফেরত দিয়েছি।’

টাকা প্রাপ্তির পর আলমগীর হোসেন জানান, রংপুরে তিনি প্রাণ (আরএফএল) গ্রুপের এরিয়া ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। তিনি বলেন, হারাগাছ এলাকা থেকে দুজন ব্যবসায়ীর টাকা নিয়ে মোটরসাইকেলে করে ব্যাংকের দিকে যাচ্ছিলাম। পথিমধ্যে টাকাগুলো রাস্তায় পড়ে যায়, কিন্তু বুঝতে পারিনি। পরে অনেক খোঁজাখুঁজি করি। কোথাও না পেয়ে চিন্তিত হয়ে পড়ি। পরে একটি অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন করে টাকা পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *